Sunday, September 23, 2018
Login
Username
Password
  সদস্য না হলে... Registration করুন
মাঠে পানি ওঠায় গাইবান্ধার চার উপজেলার ৫৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান সাময়িকভাবে বন্ধ                 

পড়াশোনা ও প্রযুক্তি


দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্জিত সনদ গ্রহণকারীদের প্রধানমন্ত্রীর সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ
আসাদুজ্জামান জুয়েল :
সময় : 2016-08-28 21:30:47

গত ২৫ জুলাই মহামান্য হাইকোটের  রায়ে শিক্ষামন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপন জারীর মাধ্যমে দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়বন্ধ ঘোষনা করেন। এতদসংক্রান্ত দেশের বিভিন্ন দৈনিকপত্রিকা এবং অনলাইন নিইজ পোর্টাল-এ ২০০৬ সালের পর থেকে দারুল ইহ্সান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গৃহীত সকল সনদ অবৈধ এবং সনদধারীদের চাকুরী হারাতে হবে মর্মে সংবাদ প্রকাশিতহয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধানক্যাম্পাস (ধানমন্ডি রোড-৯/এ, বাড়ি নং-২১) থেকে সনদ গ্রহীতাদের মধ্যে চরম আতংক বিরাজমান। অর্জিতস দনধারীরা এখন সমাজের সর্বস্থরে ব্যক্তিগত, পারিবারিক, সামাজিকভাবে এবং স্ব স্ব কর্মস্থলে ব্যাপক নিগ্রহের শিকার হচ্ছেন। ফলে তাদের স্বাভাবিক জীবন যাত্রায় বির্পযয় দেখা দিয়েছে। 

এখানে  উল্লেখ্য যে,উল্লিখিত রায়ে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্জিতসনদ অবৈধ উল্লেখ করা হয়নি এবং এ সংক্রান্ত প্রকাশিক সংবাদ ভিত্তিহীন তথ্যের আলোকে করা হয়েছে মর্মে  প্রতীয়মান হয়। দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ক্যাম্পাস (ধানমন্ডিরোড-৯/এ, বাড়ি নং-২১) থেকে অর্জিতসনদ বরাবরই সরকার এবং ইউজিসি বৈধতা প্রদান করছে এবং সর্বশেষ নং-ইউজিসি/বে:বি:/৪০০(৩)/অংশ-১/০২/৩৬৫৫, তারিখ: ৩১ মে ২০১৫ স্মারক মূলে ইউজিসি কর্তৃক জারীকৃত এক পত্রে প্রধানক্যাম্পাস (ধানমন্ডি রোড-৯/এ, বাড়ি নং-২১) এর সনদের আইনগত বৈধতা প্রদান করা হয় (ছায়ালিপি সংযুক্ত)। বর্ণিতবিষয়ে, ২০০৬ সালের পর থেকে যদি বিশ্ববিদ্যালয় অবৈধ ঘোষিত হয় তাহলে কিভাবে সরকার এবং ইউজিসির সম্মুখে এতদিন (১০ বছর) বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা কার্যক্রম চালু রেখে সনদ প্রদান করল এবংমহামান্য রাষ্ট্রপতি কর্তৃক ১২/১০/০৬ইংতারিখে প্রফেসর মনিরুল হক (সাবেক সদস্য ইউজিসি)স্যারকে দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি হিসাবে নিয়োগ প্রদান করলেন। প্রফেসর মনিরুল হক স্যার উক্ত পদে ২২/০৩/২০১০ইংতারিখ পর্যন্ত কর্মরত থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করেন এবং কর্মরত অবস্থায় তিনি ২২/০৩/২০১০ইং তারিখে মৃত্যুবরণ করেন। 

প্রধান ক্যাম্পাস (ধানমন্ডি রোড-৯/এ, বাড়ি নং-২১) এরশিক্ষার্থীবৃন্দ  রাষ্ট্রপতি কর্তৃক নিয়োজিত ভিসি এবং ক্যাম্পাস এর বৈধতার ভিত্তিতে উক্ত ক্যাম্পাসে ভর্তি হয় এবং সকলএকাডেমিক শিক্ষা কার্যক্রম সমপন্ন করে সনদ গ্রহন করেছেন। এর মধ্যে  অনেক শিক্ষার্থী সরকারী এবং বে সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চতর ডিগ্রী অর্জন করে সরকারী এবং বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে সুনামের সহিত কর্মরত রয়েছেন। সনদ অবৈধ ঘোষনা করলে নিয়ম অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ক্যাম্পাস (ধানমন্ডি রোড-৯/এ, বাড়ি নং-২১)এর শিক্ষার্থীদের উচ্চতর ডিগ্রীর সনদের কার্যকারিতা থাকবেনা এবং তারা চাকুরীচ্যুত হবেন। এ প্রসংঙ্গে তারা এবং তাদের পোষ্যদের ভবিষ্যত জীবন চরম অনিশ্চয়তার অন্ধকারে ধাবিত হবে। বর্নিত বিষয়টিকে মানবিকভাবে বিবেচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। 

সকল মন্তব্য

মন্তব্য দিতে চান তাহলে Login করুন, সদস্য না হলে Registration করুন।

সকালের আলো

Sokaler Alo

সম্পাদক ও প্রকাশক : এস এম আজাদ হোসেন

নির্বাহী সম্পাদক : সৈয়দা আফসানা আশা

সকালের আলো মিডিয়া ও কমিউনিকেশন্স কর্তৃক

৮/৪-এ, তোপখানা রোড, সেগুনবাগিচা, ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত

মোবাইলঃ ০১৫৫২৫৪১২৮৮ । ০১৭১৬৪৯৩০৮৯ ইমেইলঃ newssokaleralo@gmail.com

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত

Developed by IT-SokalerAlo     hit counters Flag Counter