Monday, April 22, 2019
Login
Username
Password
  সদস্য না হলে... Registration করুন

উপ- সম্পাদকীয়


ঢাকা শহরের দূর্বিসহ যানজট নিরসনে আমার বিকল্প ভাবনা
হাবিবুর রহমান, :
সময় : 2019-02-04 16:47:44

 

প্রিয় ঢাকা শহরের যানজন অসহনীয় অবস্থায় পৌছে গেছে অনেক আগেই। নানা জন নানা তত্ত্ব দিলেও কোন তত্ত্বই কাজে আসছে না। বিকল্প হিসেবে মেট্রোরেল, অভারপাস, ফোরলেন,ওয়াটার বোট আরও কত কি! আজকের প্রাসংগিকতাই আমি যে কথাটি উপস্থাপন করতে চাই, সেটা হলো বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে হাজার হাজার কোটি টাকা ব্যায় না করেও প্রিয় এই নগরীর ৬০ থেকে ৮০ ভাগ পর্যন্ত যানজট নিরসন সম্ভব। কি বিশ্বাস হচ্ছে না? এবার কাজের কথাই আসা যাক।

যানজটের প্রধান সময় এবং প্রধান উপলক্ষ্য মূলত দুটি। সময় দুটি হলো সকাল বেলা যখন সবাই কর্মক্ষেত্রে/অফিসে/শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে  যায়।  আর একটি হলো বিকাল বেলা যখন তারা ফিরে আসে । মূলত পিক আওয়ার বলতে আমরা এই দুইটি সময়কেই  বুঝি। জয়দেবপুর থেকে শুরু করে নারায়নগঞ্জ পর্যন্ত সীমারেখার মধ্যে যারা বসবাস করে তাদের বেশীর ভাগ মানুষের কর্মক্ষেত্র ঢাকায়। ঢাকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও এই অ লের ছেলে/মেয়েরা পড়াশুনা করে। সকাল থেকে শুরু করে রাত পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন অ লে ইন্টারসিটি /লোকাল ট্রেনগুলো যাতায়াত করে। ইন্টারসিটি ট্রেনগুলো সাধারনত বিমান বন্দর রেল ষ্টেশন ছাড়া মধ্যবর্তী অন্য কোন স্টেশনে দাড়ায় না। আর লোকাল ট্রেন গুলোর আভ্যন্তরীন পরিবেশ এত খারাপ যে, জনসাধারনরা এতে ভ্রমন করতে সাচ্ছন্দবোধ করেননা। যদি এই ট্রেন গুলো জয়দেবপুর, টংগী, বিমানবন্দর, বনানী, তেজগাও সহ প্রত্যেকটি স্টেশনে দাড়াত তাহলে একবার ভেবে দেখুনতো কত মানুষ এর সুবিধা পেত। এক্ষেত্রে ট্রেনটি ঢাকা থেকে তার সর্বশেষ গন্তব্যে পৌছতে সর্বোচ্চ ৩০ থেকে ৪০ মিনিটের বিলম্ব হবে। কিন্তু এই ৩০/৪০ মিনিটের জন্য লক্ষাধিক মানুষ ট্রেনের এই সেবাটি পাবে। কিছুদিন আগেও অফিসগামী মানুষের কথা চিন্তা করে বাংলাদেশ রেলওয়ে, জয়দেবপুর হতে ঢাকা পর্যন্ত একটি ডামি ট্রেন দিয়েছিল। এতে সাধারন মানুষ উপকৃত হয়েছিল। পাশাপাশি বাসের উপর চাপও কমেছিল। কিন্তু কিছুদিন যেতে না যেতেই কে বা কাদের ইশারায় ট্রেনের টাইম শিডিউল অফিস টাইমের সাথে অসামনজস্য করা হলো। ইন্টারসিটি ট্রেনগুলোকে ঢাকার অভ্যন্তরের স্টেশনগুলোর প্রতিটি স্টেশনে থামিয়ে যেমন এই সমস্যার সমাধান সম্ভব, ঠিক তেমনি জয়দেবপুর থেকে ঢাকা এবং নারায়নগঞ্জ থেকে ঢাকা এই দুই রুটে পিক আওয়ারে স্পেশাল কয়েকটি ট্রেন দিলে এটা আরো যুগোপযুগী হবে বলে আমি মনে করি। টংগী থেকে কমলাপুর পর্যন্ত ডাবল লাইন থাকলেও জয়দেবপুর হতে নারায়নগঞ্জ পর্যন্ত ডাবল লাইন করতে বেশী অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। মোট কথা সদিচ্ছা এবং আন্তরিকতা থাকলে এ সমস্যার সমাধান আগামীকাল থেকেই সম্ভব হবে বলে আমি মনে করি। 

ম্যানেজার, সোনালী ব্যাংক লিমিটেড

আরো সংবাদ

সকল মন্তব্য

মন্তব্য দিতে চান তাহলে Login করুন, সদস্য না হলে Registration করুন।

সকালের আলো

Sokaler Alo

সম্পাদক ও প্রকাশক : এস এম আজাদ হোসেন

নির্বাহী সম্পাদক : সৈয়দা আফসানা আশা

সকালের আলো মিডিয়া ও কমিউনিকেশন্স কর্তৃক

৮/৪-এ, তোপখানা রোড, সেগুনবাগিচা, ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত

মোবাইলঃ ০১৫৫২৫৪১২৮৮ । ০১৭১৬৪৯৩০৮৯ ইমেইলঃ newssokaleralo@gmail.com

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত

Developed by IT-SokalerAlo     hit counters Flag Counter