Wednesday, October 17, 2018
Login
Username
Password
  সদস্য না হলে... Registration করুন
লং ড্রাইভে প্রেমিকা দিশা পাটানিকে নিয়ে টাইগার শ্রফ                 উদীয়মান মডেল মানসী দীক্ষিত খুন                  পূর্বঘোষণা অনুযায়ী রাজশাহী শহরের সর্বশেষ সিনেমা হল ‘উপহার’ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে                

বাহারি


ছোট পর্দা থেকে আসা সিনেমার নায়িকা, কে কেমন করছে?
সকালের আলো প্রতিবেদক :
সময় : 2018-03-13 07:21:04

টিভি থেকে আসা সিনেমার নায়িকা, কে কেমন করছে? টিভি পর্দায় অভিনয়ের মাধ্যমে শোবিজ ক্যারিয়ার শুরু। সেই সুবাদে ছিলেন নাটকের অভিনেত্রী। বিজ্ঞাপন আর নাটকে বেশ কয়েক বছর ছিলেন সরব। এরপর এলেন সিনেমায়। কিন্তু পর্দার রেস তো অতটা সহজ নয়। এখানে বেশ সংগ্রাম করে ক্যারিয়ার গড়ে নিতে হয়। কারণ দর্শকরা গাঁটের পয়সা খরচ করে টিকিট কেটে প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে ছবি দেখেন। তাদের মন ভোলানো এত সহজ কাজ নয়! টিভি পর্দা থেকে উঠে আসা নায়িকারা বড় পর্দার রেসে কেমন তা নিয়েই এ আয়োজন।

টিভি পর্দার কাজ করা অনেক অভিনয় শিল্পীরই বড় পর্দায় কাজ করার একটা সুপ্ত বাসনা থাকে। অনেকের এ বাসনা পূরণও হয়। কেউ আবার সুযোগ পেলেও চিত্রনায়িকা হয়ে ওঠার সৌভাগ্য ললাটে জোটে না। কারও কাছে একেবারেই অধরা থাকে এটি। এখন নাটকের অনেক অভিনেত্রীই রয়েছেন যারা চিত্রনায়িকা হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন। নাটক, সিনেমা- দুই মাধ্যমে ব্যস্ততার মধ্যেই কাটছে তাদের সময়। তাদের পরিচয় কখনও টিভি অভিনেত্রী, আবার কখনও সিনেমার নায়িকা। তবে হিসাবের খাতা উল্টালে এর মধ্যে প্রায়ই সবাই চেষ্টার মধ্যেই আছেন। সাফল্য আসবে এ আশায় এখনও অনেকে সিনেমায় অভিনয় চালিয়ে যাচ্ছেন। স্বপ্ন দেখছেন হয়তো তার ঝুলিতেও একদিন সাফল্য ধরা দেবে।

জয়া আহসান

জয়া আহসানঃ টিভি পর্দায় কাজের শুরু এমন অভিনেত্রীদের তালিকা করলে প্রথমেই উঠে আসবে জয়া আহসানের নাম। ক্যারিয়ার নাটক দিয়ে শুরু হলেও জয়ার সিনেমায় অভিষেক হয় ২০০৪ সালে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘ব্যাচেলর’-এর মাধ্যমে। পরে দীর্ঘ ৬ বছর পর ‘ডুবসাঁতার’ সিনেমায় অভিনয় করেন। ২০১১ সালে ‘ফিরে এসো বেহুলা’ এবং ‘গেরিলা’ সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি। তার ঝুলিতে আরও রয়েছে ‘চোরাবালি’, ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী ওয়ান ও টু’, ‘খাঁচা’। বর্তমানে অভিনয় করছেন ‘দেবী’ ও ‘বিউটি সার্কাস’ নামের দুটি সিনেমায়। নাটক থেকে সিনেমায় এসে জয়া সফল। এখন তো তিনি বাংলাদেশ-ভারত দুই দেশেই সমানতালে ছবিতে অভিনয় করে যাচ্ছেন। নাটকে এখন আর তাকে দেখা যায় না বললেই চলে। পুরোপুরি কলকাতার নায়িকাও বলছেন অনেকে। কারণ কলকাতাতেই এখন তার সাফল্য বেশি। ক’দিন আগে বাংলাদেশের প্রথম কোনো অভিনেত্রী হিসেবে কলকাতায় ফিল্ম ফেয়ার পুরস্কারও পেয়েছেন। সেটি জয়ার দ্বারাই সম্ভব হয়েছে।

 

সোহানা সাবা

নাটকের আরেক অভিনেত্রী সোহানা সাবা। তবে অভিনেত্রী পরিচয়ে পরিচিত হলেও মিডিয়াতে তার ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিল নাচের মাধ্যমে। পরে নাটকে অভিনয় শুরু করেন। এরপর অফট্র্যাকের সিনেমায় অভিনয় করে চিত্রনায়িকা পরিচয় পেলেও দর্শকদের কাছে যে ধরনের সিনেমায় অভিনয় করে নায়িকারূপে পরিচিত হতে হয়, সেটি ছিল না সাবার ক্ষেত্রে। এবার সে পরিচয়ও পাচ্ছেন তিনি। অফট্র্যাকের বাইরে এবার বাণিজ্যিক সিনেমার নায়িকা হিসেবেও কাজ করছেন। অভিনয় করছেন ‘আব্বাস’ নামের একটি সিনেমায়। এতে চিত্রনায়ক নিরবের প্রেমিকা হিসেবে অভিনয় করছেন তিনি। অফট্র্যাকের সিনেমা দিয়ে চিত্রনায়িকা হিসেবে পরিচিত হলেও বাণিজ্যিক সফলতাই বলে দেবে তিনি এ ধারার সিনেমার জন্য কতটা ফিট।

পরীমনি

পরীমনিঃ অন্যদিকে এ সময়ের আলোচিত নায়িকা পরীমনিও ক্যারিয়ার শুরু করেছেন নাটক দিয়ে। যদিও অনেকেই তথ্যটি জানেন না। তবে এখন তিনি সিনেমার বাইরে আর কোথাও নেই।

আইরিনঃ তবে এ ক্ষেত্রে নাটকে নয়, র‌্যাম্পের মেয়ে ছিলেন আইরিন। র‌্যাম্পে স্টাইলিশ হাঁটা আর বিলবোর্ডে তার বড় বড় ছবি শহরের মোড়ে মোড়ে শোভা পেত। সেখান থেকে চলে আসেন অভিনয়ে। তাও আবার চিত্রনায়িকা! এখন নিয়মিতই ছবিতে অভিনয় করে যাচ্ছেন। র‌্যাম্পকন্যা নয়, চিত্রনায়িকা হিসেবেই পরিচিত পাচ্ছেন। তবে সফলতার ঝুলিতে তেমন কোনো ব্যবসা সফল ছবি না থাকলেও দর্শকদের কাছে নিজের আলাদা একটা পরিচয় করে নিয়েছেন।

নুসরাত ইমরোজ তিশা

নুসরাত ইমরোজ তিশাঃ গত বছরের শেষ দিকে মুক্তি পায় আলোচিত-সমালোচিত সিনেমা ‘ডুব’। এ ছবিতে বলিউড তারকা ইরফান খানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের নুসরাত ইমরোজ তিশা। এর পরই মুক্তি পায় তার অভিনীত তৌকীর আহমেদ পরিচালিত সিনেমা ‘হালদা’। তিশাও কিন্তু টিভি তারকা হিসেবেই দর্শকদের কাছে পরিচিত। টিভিতে তার শুরুটা গান দিয়ে। এরপর নামেন অভিনয়ে। ১৯৯৭ সালে অনন্ত হীরার ‘সাতপেড়ে কাব্য’ নামে একটি নাটকে শিশুশিল্পী হিসেবে শখের বশে অভিনয়ের মাধ্যমে এ জগতে পা রাখেন তিশা। ২০০৩ সাল থেকে অভিনয় ও মডেলিংয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন তিনি। ‘এঞ্জেল ফোর’ নামের একটি ব্যান্ড দলও গঠন করেছিলেন। এখন তো সিনেমা নিয়েই ব্যস্ততা যাচ্ছে তার। বাণিজ্যিক ধারার সিনেমায় আগেই অভিনয় করেছেন তিশা। কিন্তু সফলতার পাল্লা খুব একটা ভারী নয়। দর্শকদের কাছে অভিনেত্রী হিসেবে প্রশংসা পেলেও নায়িকা হিসেবে এখনও নিজের অবস্থান তৈরি করতে পারেননি তিনি।

মৌসুমী হামিদ

মৌসুমী হামিদঃ চলচ্চিত্রে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য ছুটছেন নাটকের আরেক জনপ্রিয় মুখ মৌসুমী হামিদ। কিন্তু ভাগ্য তার সহায় হচ্ছে না। তাই বারবার নাটকেই ফিরতে হচ্ছে তাকে। ২০১০ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতায় রানার্সআপ হন তিনি। তারপর থেকেই নাটকে অভিনয় শুরু করেন। ২০১৩ সালে এসে নাম লেখান সিনেমার নায়িকা হিসেবে। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবিগুলো হচ্ছে- অনন্য মামুনের ‘ব্ল্যাকমেইল’, সাফি উদ্দিনের ‘ফুল লেনথ লাভ স্টোরি : পার্ট টু’ এবং শামিম আহম্মেদ রনির ‘মেন্টাল’। কিন্তু সফলতা তার কাছে অধরাই রয়ে গেছে।

জাকিয়া বারি মমঃ অন্যদিকে আরেক লাক্স সুপারস্টার জাকিয়া বারি মম খুব চেষ্টা করছেন চিত্রনায়িকা হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেতে। কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। কিন্তু তার কাছেও সফলতা সোনার হরিণই রয়ে গেল।

বিদ্যা সিনহা মিমঃ আরেক লাক্স সুপারস্টার বিদ্যা সিনহা মিমও সিনেমা দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করে নাটকে প্রতিষ্ঠা পান। কিন্তু মননে-মগজে সিনেমার প্রতি আকৃষ্ট এ নায়িকার চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারও ব্যর্থতা-সফলতার দোলাচলে দুলছে।

নুসরাত ফারিয়া

নুসরাত ফারিয়াঃ অন্যদিকে টিভি পর্দার উপস্থাপক হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন আলোচিত নায়িকা নুসরাত ফারিয়া। এখন তো পুরোদস্তুর নায়িকা তিনি। কলকাতার অভিনেতা জিতের সঙ্গে দুটি ছবিতে নায়িকা হিসেবে অভিনয় করেছেন। এখন টিভি পর্দায় একেবারেই যেন নেই। ধ্যানজ্ঞান দিয়েই চলচ্চিত্রে নেমেছেন তিনি। তবে এখনও মাঝে মাঝে উপস্থাপনায় দেখা যায় এ নায়িকাককে। সম্প্রতি শোনা গেল, নতুন একটি গানেও কণ্ঠ দিয়েছেন। শিগগিরই গানটির মিউজিক ভিডিও প্রকাশ পাবে বলেও জানিয়েছেন এ অভিনেত্রী।

সকল মন্তব্য

মন্তব্য দিতে চান তাহলে Login করুন, সদস্য না হলে Registration করুন।

সকালের আলো

Sokaler Alo

সম্পাদক ও প্রকাশক : এস এম আজাদ হোসেন

নির্বাহী সম্পাদক : সৈয়দা আফসানা আশা

সকালের আলো মিডিয়া ও কমিউনিকেশন্স কর্তৃক

৮/৪-এ, তোপখানা রোড, সেগুনবাগিচা, ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত

মোবাইলঃ ০১৫৫২৫৪১২৮৮ । ০১৭১৬৪৯৩০৮৯ ইমেইলঃ newssokaleralo@gmail.com

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত

Developed by IT-SokalerAlo     hit counters Flag Counter