Monday, April 22, 2019
Login
Username
Password
  সদস্য না হলে... Registration করুন
দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন প্রবাসীরা                 বিমানবন্দরে লাল গালিচা সংবর্ধনা ও গার্ড অব অনার প্রদানের মাধ্যমে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানো হয়েছে শেখ হাসিনাকে                 রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় হতাহতের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও শোক প্রকাশ করেছেন                 তিনদিনের সরকারি সফরে ব্রুনাইয়ের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা                 জামিনের মাধ্যমে বিএনপি খালেদা জিয়ার মুক্তি চায় প্যারোলে নয়                 আজ থেকে ‘বিপিও সামিট বাংলাদেশ ২০১৯’ শুরু হচ্ছে                 জোরপূর্বক স্থানচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকদের অবশ্যই তাদের নিজ বাসভূমিতে ফিরে যেতে হবে                 বিগত বছরগুলোতে রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকা আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পেয়েছে                 সাধারণ রোগীদের মতো দশ টাকার টিকিট কেটে চোখ দেখালেন প্রধানমন্ত্রী                  বিএনপির নেতারা আগে খালেদার মুক্তি, পরে সংসদে যাওয়ার প্রশ্ন বলে মন্তব্য করেছেন                 দেশের পর্যটন শিল্পের বিকাশে সরকারি-বেসরকারি সমন্বিত উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি                 বড় বড় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটছে সচেতনতার অভাবে-প্রধানমন্ত্রী                  ধারণা করা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর সফরে ব্রুনাইয়ের সঙ্গে ৭ সমঝোতা স্বাক্ষর হবে                

মূল সংবাদ


পহেলা বৈশাখের মঙ্গল শোভাযাত্রায় অশুভ, অমঙ্গল আর অন্ধকার রোধের দৃপ্ত শপথ
সকালের আলো প্রতিবেদক :
সময় : 2019-04-14 15:19:40

পহেলা বৈশাখের মঙ্গল শোভাযাত্রায় অশুভ, অমঙ্গল আর অন্ধকার রোধের দৃপ্ত শপথ ধ্বনিত হলো। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইন্সটিটিউটের বর্ণিল এই আয়োজনে যোগ দেন সর্বস্তরের মানুষ। এবারের মঙ্গল শোভাযাত্রার মূল প্রতিপাদ্য ‘মস্তক তুলিতে দাও অনন্ত আকাশে’। সপ্রাণ ও উচ্ছাসভরা এই আয়োজনের এবছর ৩০ বছর পূর্তি হলো। সমাজের সব অন্যায়-অনাচার দূর করে নতুনের সম্ভাবনায় ভরে উঠবে বাংলা নতুনবর্ষ, এই প্রত্যাশাই করেন শোভাযাত্রায় অংশ নেয়া মানুষেরা।

বাঘের মুখ থেকে কাঁটা তোলার চিরায়ত গল্পটি উপস্থাপিত হয়েছে বাঘ ও বকের অনুষঙ্গে। মঙ্গলের বারতা পেঁচা। রয়েছে দুই মাথাওয়ালা ঘোড়া, পাখি, কাঠঠোকরা, রাজা-রানির মুখোশ। বাংলা নতুন বছর ১৪২৬ বরণে চারুকলার মঙ্গল শোভাযাত্রার এসব শিল্প-কাঠামোর মধ্য দিয়ে তুলে ধরা হয়েছে চিরায়ত বাংলার লোকজ সংস্কৃতিকে।

সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ থেকে বের হয় মঙ্গল শোভাযাত্রা। বাঙালিয়ানার চিরন্তন সাজে, সকল মানুষের শোভাযাত্রা পরিনত হয় উৎসব আর আনন্দের প্রবহমানতায়।
 
লাল-সাদা পোশাকে উচ্ছল নারীদের মাথায় শোভা পায় নানান রঙ্গের ফুল। তরুণ, যুবক, বৃদ্ধ, শিশু সবার পরণে লাল-সাদা পাঞ্জাবি, ফতুয়া আর নানা বাহারী বসন। সম্প্রীতির আবাহনের পাশাপাশি উচ্চারিত হয়েছে নানা অন্যায়ের প্রতিবাদ আর শুভ আগামীর প্রত্যাশা।
 
১৯৮৯ সালে শুরু হওয়া এই উৎসব গত ৩০ বছরে পেরিয়েছে দেশের গন্ডিও। ১৯৯৬ সালে আনন্দ শোভাযাত্রার নামকরণ হয় ‘মঙ্গল শোভাযাত্রা’। আর ২০১৬ সালে ইউনেসকোর বিশ্ব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের স্বীকৃতি পায় এই আয়োজন। শোভাযাত্রায় আনন্দমুখর অংশগ্রহণ ছিলো অনেক ভিনদেশীর।

চারুকলা থেকে বের হয়ে শাহবাগ মোড় হয়ে শিশুপার্কের সামনে দিয়ে ঘুরে টিএসসি হয়ে আবারো শাহবাগে গিয়ে শেষ হয় মঙ্গল শোভাযাত্রা। হাজারো মানুষের প্রাণোচ্ছাসে পূর্ণ এই আয়োজনকে নিরাপদ রাখতে ছিলো তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। বর্ণ, ছন্দ ও উচ্ছাসমাখা এই মঙ্গল শোভাযাত্রা জুড়ে ছিলো সুন্দর আগামীর প্রত্যাশা।

সকল মন্তব্য

মন্তব্য দিতে চান তাহলে Login করুন, সদস্য না হলে Registration করুন।

সকালের আলো

Sokaler Alo

সম্পাদক ও প্রকাশক : এস এম আজাদ হোসেন

নির্বাহী সম্পাদক : সৈয়দা আফসানা আশা

সকালের আলো মিডিয়া ও কমিউনিকেশন্স কর্তৃক

৮/৪-এ, তোপখানা রোড, সেগুনবাগিচা, ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত

মোবাইলঃ ০১৫৫২৫৪১২৮৮ । ০১৭১৬৪৯৩০৮৯ ইমেইলঃ newssokaleralo@gmail.com

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত

Developed by IT-SokalerAlo     hit counters Flag Counter