Friday, November 16, 2018
Login
Username
Password
  সদস্য না হলে... Registration করুন
সব প্রতিরোধ ভেঙে বড় জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল                 ঢাকা টেস্টের চতুর্থ দিনে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিপর্যয়ের মুখে স্বাগতিকরা                 মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আরেকটি হার সঙ্গী হলো বাংলাদেশের                 ৭ উইকেটে ৫২২ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ                 রাজু স্মৃতি ৮দলীয় ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত                

খেলার সংবাদ


১৫১ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ
সকালের আলো প্রতিবেদক :
সময় : 2018-11-06 14:21:05

বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা জিম্বাবুয়ে বোলারদের ভেলকির জবাব খুঁজে পেলেন না। অন্যদিকে অযাচিত শট খেলার নেশাও ছাড়তে পারলেন না তারা। যার খেসারত গুনে একের পর এক এলেন আর গেলেন। সবশেষ যাওয়া-আসার মিছিলে যোগ দিলেন আরিফুল হক (৩৮)। ওয়েলিংটন মাসাকাদজার বলে রেজিস চাকাভার গ্লাভসবন্দি হয়ে ফিরলেন তিনি।

এতে সিলেট টেস্টের চতুর্থ ও নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ১৬৯ রানে গুটিয়ে গেল স্বাগতিকরা। ফলে দেড় দিন আগে এবং ১৫১ রানের বড় ব্যবধানে হারের লজ্জা নিয়ে মাঠ ছাড়ল তারা। আর দুর্দান্ত এ জয়ে ২ ম্যাচ সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেল সফরকারীরা।

জয়ের জন্য বাংলাদেশের লক্ষ্য ছিল ৩২১ রান। ইতিহাস বলছে, এ রান তাড়া করে জিততে হলে অসাধ্য সাধন করতে হতো টাইগারদের। গড়তে হতো অনন্য রেকর্ড। নিজেদের টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড নজির স্থাপন করতে হতো। আগের রেকর্ডটি ছিল ২১৫। ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এ রান তাড়া করে জেতে টিম বাংলাদেশ।

তৃতীয় দিন আলোকস্বল্পতায় ১৩.৫ ওভার কম হওয়ায় এদিন নির্ধারিত সময়ের আধ ঘণ্টা আগে (সকাল সাড়ে ৯টা) খেলা শুরু হয়। রেকর্ড গড়ে জেতার ভূত ঘাড়ে চাপিয়ে আগের দিনের ২৬ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামেন বাংলাদেশ দুই ওপেনার ইমরুল-লিটন।

চতুর্থ দিনে এক্সট্রা বাউন্স পান পেসাররা। বাড়তি টার্ন পান স্পিনাররা। কিছু বল আপ-ডাউন করে। ফলে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ে বাংলাদেশ। যথাসম্ভব বলের গুণাগুণ বজায় রেখে খেলার চেষ্টা করেন লিটন। তা সত্ত্বেও হার মানতে হয় তাকে (২৩)। সিকান্দার রাজার এলবিডব্লিউ হয়ে সাজঘরে ফিরতে বাধ্য হন তিনি।

ক্রিজে নেমেই আগ্রাসী হয়ে ওঠেন মুমিনুল হক। অতি রোমাঞ্চপ্রিয়তার খেসারতও গুনতে হয় তাকে। কাইল জার্ভিসের আউটসুইঙ্গারে প্লেড অন হয়ে ফেরেন তিনি। শুরু থেকে রোবটের মতো চেষ্টা করেন ইমরুল কায়েস (৪৩)। তবে হার মানতে হয় তাকেও। রাজার বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন তিনি। এতে চাপে পড়ে টাইগাররা। সেই চাপের মধ্যে ধৈর্যের পরিচয় দিতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ফের শিকারী রাজা। তার বলে শন অরভিনকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। ফলে বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ।

আবারো ব্যর্থ নাজমুল হোসেন শান্ত। এবার শিকারী ব্রেন্ডন মাভুতা। তার বলে সিকান্দার রাজার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ঘরোয়া ক্রিকেটে দুর্দান্ত পারফরম করা এ ব্যাটসম্যান। এর সঙ্গে সঙ্গে হারের মুখে পড়ে টাইগাররা।

শেষ ভরসা হয়ে ছিলেন মুশফিকুর রহিম। বেশ স্বাচ্ছন্দে খেলছিলেন তিনি। কিন্তু হঠাৎই খেই হারান মিস্টার ডিপেন্ডেবল। মাভুতার বলে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে ওয়েলিংটন মাসাকাদজাকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। এ পরিস্থিতিতে ব্যাটিং সত্ত্বাকে বের করে আনতে পারেননি মেহেদী হাসান মিরাজ। ফের শিকারী মাভুতা। তার বলে উইকেটের পেছনে রেজিস চাকাভাকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। ফলে কতক্ষণের মধ্যে ইনিংস গুঁড়িয়ে যায়-সেই অপেক্ষা এসে দাঁড়ায়। শেষ পর্যন্ত ১৬৯ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ।

এদিন বাংলাদেশকে নাচিয়ে ছাড়েন সফরকারী বোলাররা। সবচেয়ে বেশি তোপ দাগান অভিষিক্ত মাভুতা। স্পিন জাল বিস্তার করে একাই ৪ উইকেট শিকার করেন এ লেগি। তবে শুরুটা করেন রাজা। টার্নিং পয়েন্টে টাইগারদের ৩ ব্যাটসম্যানকে শিকারে পরিণত করেন তিনি। তাদের যোগ্য সহযোদ্ধার সমর্থন জোগান ওয়েলিংটন। তিনি ঝুলিতে ভরেন ২ উইকেট।

সকল মন্তব্য

মন্তব্য দিতে চান তাহলে Login করুন, সদস্য না হলে Registration করুন।

সকালের আলো

Sokaler Alo

সম্পাদক ও প্রকাশক : এস এম আজাদ হোসেন

নির্বাহী সম্পাদক : সৈয়দা আফসানা আশা

সকালের আলো মিডিয়া ও কমিউনিকেশন্স কর্তৃক

৮/৪-এ, তোপখানা রোড, সেগুনবাগিচা, ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত

মোবাইলঃ ০১৫৫২৫৪১২৮৮ । ০১৭১৬৪৯৩০৮৯ ইমেইলঃ newssokaleralo@gmail.com

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত

Developed by IT-SokalerAlo     hit counters Flag Counter